মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৫:১০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সারা দেশে খাদ্য গুদামগুলো ডিজিটালাইজড করা হচ্ছে প্রকৃত শিক্ষা সৎ ও নিষ্ঠার সাথে জীবন যাপন করতে শেখায়: এমপি কায়সার ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে: গোলাম দস্তগীর গাজী এমপি বন্দরে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা পুষ্টি উন্নয়ন ও দারিদ্র হ্রাসকরণের লক্ষ্যে আড়াইহাজারে মাশরুম চাষ দিবস অনুষ্ঠিত পুলিশ সদস্যের কাছে ২ লাখ টাকা নিয়ে গেলেন অজ্ঞানপার্টির সদস্য সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের মানববন্ধন ও মিছিল, বাজেট প্রত্যাখ্যান দুর্নীতিবাজকে সরাসরি দুর্নীতিবাজ বলতে শিখুন: দুদক কমিশনার জীবন একটাই, এ জীবন নিয়ে চিকিৎসার নামে হয়রানি মেনে নেয়া হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী র‌্যাব পরিচয়ে ৫২ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৪

শিক্ষা-কর্মসংস্থান ও ভোটাধিকারের দাবিতে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের ছাত্র সমাবেশ

স্পাফ রিপোর্টার
  • Update Time : রবিবার, ১৭ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৮ Time View
Satro somabesh শিক্ষা-কর্মসংস্থান ও ভোটাধিকারের দাবিতে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের ছাত্র সমাবেশ

মহান শিক্ষা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন নারায়ণগঞ্জ জেলা কমিটির উদ্যোগে নারায়ণগঞ্জ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে “শিক্ষা দিবসের শহীদদের স্মরণে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করে ছাত্র সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার (১৭ সেপ্টেম্বর) বেলা ১২ টায় এ শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করে ছাত্র সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা সভাপতি ছাত্রনেতা ফারহানা মানিক মুনার সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা সৃজয় সাহার সঞ্চালনায় ছাত্র সমাবেশে বক্তব্য রাখেন জেলা সহ-সভাপতি ছাত্রনেতা সাঈদুর রহমান, জেলা সহ-সাধারণ সম্পাদক ছাত্রনেতা তাইরান আবাবিল রোজা, মহানগর আহবায়ক ছাত্রনেতা সৌরভ সেন, সোনারগাঁও থানা কমিটির আহবায়ক ছাত্রনেতা মোমেন হাসান প্রান্ত, ফতুল্লা থানা কমিটির আহবায়ক ছাত্রনেতা ইউশা ইসলাম, হাজি মিছির আলি কলেজ কমিটির আহবায়ক ছাত্রনেতা মৌমিতা আক্তার। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন শাখা কমিটির কর্মী-সংগঠকরা।

জেলা কার্যালয় থেকে মিছিলের মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু করে শহর ঘুরে মিছিল চাষাঢ়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে শিক্ষা আন্দোলন এবং মুক্তি সংগ্রামের শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন পরবর্তীতে ছাত্রসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

সভাপতির বক্তব্যে ফারহানা মানিক মুনা বলেন, ‘মহান শিক্ষা দিবস আমাদের মনে করিয়ে দেয় ছাত্ররা ঐক্যবদ্ধ হয়ে যে কোনো অপশক্তি এবং সরকারের যেকোনো অগণতান্ত্রিক সিদ্ধান্তকে রুখে দিতে সক্ষম। ১৯৬২ সালে স্বৈরাচারী আইয়ুব সরকারের শোষণ এবং শিক্ষা সংকোচন নীতির বিরুদ্ধে ছাত্ররা আন্দোলন গড়ে তুলে।

পুলিশের গুলিতে নিহত হন ওয়াজিউল্লাহ, গোলাম মোস্তফা, বাবুল সহ নাম না জানা অনেকে। সেই দিনের সেই আন্দোলনে ছাত্রদের দাবি এবং আকাঙ্ক্ষা বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়া সত্ত্বেও আজও পূরণ হয়নি। বরং উন্নয়নের জোয়ারে ভেসেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর অবকাঠামোর উন্নতি হয়না।

শিক্ষা ব্যবস্থার ভঙ্গুর অবস্থা, পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পড়ার মান বিশ্ব রেংকিং এ তলানিতে, সাত কলেজে সেশনজট ছাত্রদের জন্য একটি কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে, জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পড়ার পরিবেশ, ক্লাশ সংকট সহ পড়ার মান তলানিতে, মাদ্রাসা-কারিগরি শিক্ষা ব্যবস্থা অবহেলিত।

সর্বোপরি বাংলাদেশের শিক্ষা ব্যবস্থার একটি করুণ পরিস্থিতি।এর থেকে বের হওয়ার জন্য চাই একটা গণতান্ত্রিক শিক্ষা ব্যবস্থা। কিন্তু যদি রাষ্ট্রের চেহাড়া হয় ফ্যাসিস্ট তাহলে সেখানে শিক্ষা ব্যবস্থার গমতান্ত্রিকায়ন সম্ভব হয় না। ফলে মানসম্মত এবং গণতান্ত্রিক শিক্ষা ব্যবস্থার প্রথম শর্ত হচ্ছে একটা গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ব্যাবস্থা নিশ্চিত করা।

ছাত্র ফেডারেশন সেই লড়াইয়ে সদা অবিচল। আমরা মনে করি, ১৯৬২ সালের ছাত্রদের সেই আন্দোলনের ধারা আমরা বর্তমানে শিক্ষার্থীরা বহন করছি। ফলে নারায়ণগঞ্জসহ দেশের সকল শিক্ষার্থীকে মানসম্মত শিক্ষা এবং গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র ও ক্যাম্পাস প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে আহবান জানাই।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Translate »