শনিবার, ১৮ মে ২০২৪, ০১:২১ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
তাকে বার বার হত্যা চেষ্টা করা হয়েছে: আব্দুল হাই সরকার নানা রকম ছলচাতুরি করে ষড়যন্ত্র করছে: জোনায়েদ সাকী পুলিশের উপর হামলার মামলা: গিয়াস উদ্দিনের জামিন না মঞ্জুর আজ শিক্ষকরা ছাত্রদের শাসন করতে ভয় পায়: অতি. পুলিশ সুপার নারায়ণগঞ্জ স্বাস্থ্য বিভাগে মাত্র ২৩৫ টাকায় নিয়োগ পেলেন ৮৪ জন আমি বলছি না আমাদের কোথায়ও কোনো ত্রুটি নেই: ভূমিমন্ত্রী আড়াইহাজারে নির্বাচনে প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসার পরিবর্তনে নির্বাচন কমিশনে আবেদন অপহৃত দুই মোটর মেকানিক উদ্ধার: ৪ অপহরণকারী গ্রেপ্তার নারায়ণগঞ্জ নিউজ পেপার ওনার্স এসোসিয়েশনের ত্রৈমাসিক সভা অনুষ্ঠিত এ্যাম্বুলেন্সের অক্সিজেন সিলিন্ডারে ২ কোটি টাকার ইয়াবা

ঈদে মিল্লাদুন্নবী আসলে নবীর দুশমন চেনা যায়: সৈয়দ বাহাদুর শাহ

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : সোমবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২৩
  • ৩ Time View
Allama abedin ঈদে মিল্লাদুন্নবী আসলে নবীর দুশমন চেনা যায়: সৈয়দ বাহাদুর শাহ

ঈদে মিল্লাদুন্নবী আসলে নবীর দুশমন চেনা যায় বলে মন্তব্য করেছেন পীরে কামেল আল্লামা সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদী আল আবেদী। তিনি বলেছেন, যারা নবীর আগমনে খুশি হয়, মনে করবেন এরা নবীর আশেক। আর যারা নবীর আগমনের বিরোধীতা করে, মনে করবেন এরা নবীর দুশমন।

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (সাঃ) উপলক্ষে রবিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বন্দরে জশনে জুলুস শোভাযাত্রা ও আনন্দ র‌্যালী শেষে নবীগঞ্জ দরগার মসজিদে আখেরি মোনাজাতের পূবে তিনি একথা বলেন।

এর আগে, সকাল ১০টায় মদনগঞ্জ বটতলা হতে জশনে জুলুস শোভাযাত্রা শুরু হয়ে বন্দরের প্রধান প্রধার সড়ক প্রদক্ষিন শেষে ঐতিহাসিক কদমরসূল দরগাহ শরীফ প্রাঙ্গনে গিয়ে শেষ হয়।

আল্লামা সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদী বলেন, মুসলমান দেখতে তো সব এক রকম। তাহলে নবীর দুশমন আপনি কিভাবে চিনবেন? ঈদে মিল্লাদুন্নবী আসলে নবীর দুশমন চেনা যায়। ওরা নবীর আগমনে খুশি না। এজন্য তারা ঈদে মিল্লাদুন্নবী’র বিরোধীতা করে। নবীর শানে কোন কথা শুনলেই তাদের গা জ্বলে যায়। ওইসব বেদাতী মৌলবিদের চিহিৃত করতে হবে।

ধর্মপ্রান মুসুল্লিদের উদ্দেশ্যে আল্লামা সৈয়দ বাহাদুর শাহ মোজাদ্দেদী বলেন, আমরা আজ এসি-ফ্যানের নিচে বসে নামাজ আদায় করি। কিন্তু আমাদের নবী খেজুর গাছের ছায়ায় বসে নামাজ আদায় করেছেন।

এসময় জশনে জুলুস উদযান কমিটির বন্দর থানা শাখার সভাপতি ও বন্দর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মোবারক হোসেন কমল খান এর সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন- জশনে জুলুস উদযাপন কমিটির বন্দর থানা শাখার সাধারন সম্পাদক হাজি আশাবুদ্দিন আশু, বন্দর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এহসানউদ্দিন আহাম্মেদ, এনসিসি ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আবুল কাউছার আশা, ২৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. আফজাল হোসন, মাহাবুবুর রহমান কমল, জশনে জুলুস উদযাপন কমিটি বন্দর থানা শাখার সহ সভাপতি নুরুল ইসলাম, মোঃ কবির হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান কমল, শরিফ হাসান চিস্তি প্রমুখ।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Translate »