মঙ্গলবার, ১৮ জুন ২০২৪, ০৪:৫০ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
সারা দেশে খাদ্য গুদামগুলো ডিজিটালাইজড করা হচ্ছে প্রকৃত শিক্ষা সৎ ও নিষ্ঠার সাথে জীবন যাপন করতে শেখায়: এমপি কায়সার ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত ও সমৃদ্ধ দেশে পরিণত হবে: গোলাম দস্তগীর গাজী এমপি বন্দরে কৃতি শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা পুষ্টি উন্নয়ন ও দারিদ্র হ্রাসকরণের লক্ষ্যে আড়াইহাজারে মাশরুম চাষ দিবস অনুষ্ঠিত পুলিশ সদস্যের কাছে ২ লাখ টাকা নিয়ে গেলেন অজ্ঞানপার্টির সদস্য সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের মানববন্ধন ও মিছিল, বাজেট প্রত্যাখ্যান দুর্নীতিবাজকে সরাসরি দুর্নীতিবাজ বলতে শিখুন: দুদক কমিশনার জীবন একটাই, এ জীবন নিয়ে চিকিৎসার নামে হয়রানি মেনে নেয়া হবে না: স্বাস্থ্যমন্ত্রী র‌্যাব পরিচয়ে ৫২ লাখ টাকা ছিনতাইয়ের ঘটনায় গ্রেপ্তার ৪

ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে নাসিকের ৩৪০টি টিকাদান কেন্দ্রে

স্টাফ রিপোর্টার
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৩০ মে, ২০২৪
  • ১২ Time View
NCC Tika 30 5 2024 ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে নাসিকের ৩৪০টি টিকাদান কেন্দ্রে
1 / 100

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের ৩৪০টি টিকাদান কেন্দ্রের মাধ্যমে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী প্রায় ২৪ হাজার ১৬৭ শিশু ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী প্রায় ১ লাখ ৯ হাজার ৮১৫ শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতীহীনভাবে এই ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এছাড়া ক্যাম্পপেইন চলাকালীন সময়ে জনসাধারণের মাঝে বিভিন্ন স্বাস্থ্য ও পুষ্টিবার্তা প্রচার করা হবে। বৃহস্পতিবার (৩০ মে) নগরভবনের ৬তলায় সভা কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান নাসিকের মেডিকেল অফিসার ডা. নাফিয়া ইসলাম।

ডা. নাফিয়া ইসলাম আরও জানান, সিটি করপোরেশনের ২৭টি ওয়ার্ডকে তিনটি জোনে ভাগ করে লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে। এরমধ্যে জোন-১ সিদ্ধিরগঞ্জ অঞ্চলে ১ থেকে ৯নং ওয়ার্ডে ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ৮ হাজার ৭২৭ শিশু ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৪৪ হাজার ৯০৭ শিশু, জোন-২ নারায়ণগঞ্জ অঞ্চলে ১০ থেকে ১৮নং ওয়ার্ডে ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ৮ হাজার ৮০৩ শিশু ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ৩৯ হাজার ৭৩ শিশু, জোন-৩ কদম রসুল অঞ্চলে ১৯ থেকে ২৭নং ওয়ার্ডে ৬ মাস থেকে ১১ মাস বয়সী ৬ হাজার ৬৩৭ শিশু ও ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ২৫ হাজার ৮৩৪ শিশু। সিদ্ধিরগঞ্জ অঞ্চলে ১১০টি, নারায়ণগঞ্জ অঞ্চলে ১৫০টি ও কদমরসুল অঞ্চলে ৮০টি টিকাদান কেন্দ্রে একযোগে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

তিনি জানান, ভিটামিন ‘এ’ শুধুমাত্র অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ব থেকে শিশুদের রক্ষা করে তা নয়, ভিটামিন ‘এ’ শিশুর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে, ডায়রিয়ার ব্যাপ্তিকাল ও জটিলতা কমায় এবং শিশু মৃত্যুর ঝুঁকি কমায়। বাংলাদেশে ভিটামিন ‘এ’ এর অভাবজনিত সমস্যা প্রতিরোধে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন একিভুত হয়ে বছরে দুইবার জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন পালন করে থাকে।

প্রসঙ্গত: ১ জুন থেকে দেশব্যাপি ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী শিশুদের একটি নিল রংয়ের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল এবং ১২ শেকে ৫৯ মাস বয়সী শিশুদের একটি লাল রংয়ের ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
Translate »